Breaking News
Home / জেলার সংবাদ / ভোলায় হঠাৎ জ্বরের প্রকোপ বৃদ্ধি

ভোলায় হঠাৎ জ্বরের প্রকোপ বৃদ্ধি

মোঃ জহিরুল ইসলাম বাপ্পী ভোলা জেলা প্রতিনিধি: ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় বেশ কিছুদিন যাবৎ হঠাৎ বেড়ে গেছে জ্বরের প্রকোপ ৷ জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে অনেকেই ৷ চলতি সপ্তাহে ডাক্তারের কাছে আসা রোগীর ৮০ ভাগই জ্বরে আক্রান্ত ছিল ৷ এদের মধ্যে বয়স্কদের তুলনায় শিশুর সংখ্যাই অধিক । এমনটি জানিয়েছেন ডাক্তাররা ৷ জ্বরের পাশাপাশি সর্দি, কাশি, প্রচন্ড ব্যাথা উপসর্গ নিয়ে আসা রোগীর সংখ্যাই বেশি। করোনা কিংবা জ্বরের উপসর্গগুলো প্রায় কাছাকাছি হওয়ায় শঙ্কিত ডাক্তার, রোগি ও স্বজনরা। করোনা টেস্ট শিশুদের জন্য একটু কঠিন বিধায় সমস্যা তাদের বেশি। বোরহানউদ্দিন সেবা মেডিকেলের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ইরফান পারভীন ( ইলোরা) জানান, এ সব শিশুদের রক্তের ” সিবিসি” টেস্ট করে সহজ উপায়ে চিকিৎসা দেওয়া উচিত। এসময় তিনি বলেন, ঘরে ঘরে জ্বর। চলতি সপ্তাহে তার কাছে আসা রোগীদের ৯০ শতাংশ ছিল জ্বরে আক্রান্ত। নবজাতক থেকে ৮ বছর বয়সীরা জ্বর, কাশি,সর্দি, তীব্র গায়ে ব্যাথা উপসর্গ নিয়ে আসেন। তাই করোনা পরিস্থিতিে শঙ্কিত আর সতর্ক থাকার কথাও বলেন তিনি। এছাড়া তিনি আরো জানান, শিশুদের বেলায় আমরা সিবিসি টেস্ট করলে ভালো হয়।রক্তে ইনফেকশন ব্যাকটেরিয়া না ভাইরাস জনিত জ্বর কি না তা চিহ্নিত হলে চিকিৎসা প্রদানে সুবিধা হয়।তিনি এ ধরনের পরিস্থিতিতে ডাক্তারের পরামর্শ ব্যতিরেকে এন্টিবায়োটিক ঔষধ পরিহরের আহ্বান জানান। এদিকে সাচড়া রামকেশব ইউনিয়নের দরুনবাজার এলাকা থেকে আসা রোগীর মা খাদিজা বেগম জানান,তার বাচ্চা তৈবুর রহমান আজ ৪ দিন পর্যন্ত জ্বরে আক্রান্ত। তিনি জানায়,আমার পরিবারের সকলে জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিল।তিনি আরও জানান,তার বাড়িতে অধিকাংশ লোক আক্রান্ত। বোরহানউদ্দিন পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের হকার কামাল হোসেন জানান,তিনি সহ পরিবারের সবাই জ্বরে আক্রান্ত। একদিকে শরীর ব্যাথা অন্যদিকে কাশতে কাশতে কুঁজো হয়ে যাওয়ার অবস্থা। পক্ষিয়া ৯ নং ওয়ার্ডের মিতু বেকারির মাহাজন জনাব মোঃ জসিম উদ্দিন জানান,তার দোকানে সবাই জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে। বোরহানউদ্দিন হাসপাতালের আরএমও ( ভারপ্রাপ্ত) ডাক্তার মশিউর রহমান সাদী জানান,তার কাছে আসা ৭০ ভাগ রোগী জ্বরে আক্রান্ত। করোনা পরিস্থিতি আগের মতোই উল্লেখ করে বলেন,ডাক্তার হিসেবে তো রোগীকে চিকিৎসা সেবা দিতেই হবে। তবে এ সমস্ত রোগীর ব্যাপারে বাড়তি সতর্ক থাকা উচিত। খুব বেশি আক্রান্ত না হলে ঘরে থেকেই চিকিৎসা নেওয়া উচিত। বেশি দিন কাশি থাকলে করোনা টেস্ট করানো উচিত। এসময় তিনি,জ্বরের ক্ষেত্রে কোন অবস্থাতেই ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া এন্টিবায়োটিক সেবন না করার অনুরোধ জানান। এবং ভিটামিন সি ও তরল জাতীয় খাবার গ্রহন ও মাস্ক ব্যবহারের অনুরোধ জানান।
SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এর আম্মার দাফন সম্পন্ন

  মোঃ সোহেল রানা: চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *