Breaking News
Home / উপজেলার খবর / নাচোলে এনমাস টিমের কোরোনার সচেতনতা কার্যক্রম অব্যাহত।

নাচোলে এনমাস টিমের কোরোনার সচেতনতা কার্যক্রম অব্যাহত।

নিজেস্ব প্রতিবেদক: গত তিনদিন থেকে একমাস টিম যথাক্রমে নিজামপুর ও ফতেপুর ইউনিয়ন এবং নাচোল পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় উপজেলা প্রশাসন ও নিজেদের বানানো সচেতনতামূলক লিফলেট এবং হ্যান্ডমাইকের মাধ্যমে সচেতনতা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ৮.নাচোলে এনমাস টিমের কোরোনার সচেতনতা কার্যক্রম অব্যাহত।

গত তিনদিন থেকে একমাস টিম যথাক্রমে নিজামপুর ও ফতেপুর ইউনিয়ন এবং নাচোল পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় উপজেলা প্রশাসন ও নিজেদের বানানো সচেতনতামূলক লিফলেট এবং হ্যান্ডমাইকের মাধ্যমে সচেতনতা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ৮.৩০মিনিট থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত মেডিকেলে আগত সকল রোগীকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া পূর্বক হাসপাতালে প্রবেশ এবং বাহির হওয়ার সময় নিজস্ব সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে বাহির হওয়ার ব্যবস্থা করে যাচ্ছেন। এছাড়াও যারা এমার্জেন্সি রোগী অটো কিংবা ভ্যানের মাধ্যমে হাসপাতালে প্রবেশ করছেন, তাদেরকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর মাধ্যমে হাত পরিষ্কার ও ব্লিচিং পাউডার সম্মিলিত তরলের মাধ্যমে ভ্যান, মোটরসাইকেল ও অটো জীবাণুমুক্ত করা পূর্বক হাসপাতালে প্রবেশের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন মসজিদে মসজিদে সাবান বিতরণ, হরিজন সম্প্রদায়ের মধ্যে সাবান বিতরণ, বাড়িতে কিভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার অথবা সাবান দিয়ে হাতকে জীবাণুমুক্ত করা যায় সেটি দেখানো, হ্যান্ডমাইক ও লিফলেট বিতরনের মাধ্যমে সচেতনতা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
এদিকে গতকাল ফতেপুর ইউনিয়নের প্রায় সবকটি বাজারে দেখা যায় এক ভিন্ন চিত্র! সেখানে বেশিরভাগ লোকই অসচেতন এবং শতকরা ৮০-৯০ ভাগ দোকানপাট ও ব্যবসা-বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন। এমতাবস্থায়, প্রশাসনের হস্তক্ষেপপূর্বক কিছু দোকানদার ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড ক্ষণিকের জন্য বন্ধ করলেও সে এলাকার জনগণের মধ্যে তেমন কোনো সচেতনতায় লক্ষ্য করা যায়নি। বিশেষ করে মল্লিকপুর ও খোলসি বাজারে বেশিরভাগ দোকানপাট ও ব্যবসা বাণিজ্যের দোকান খোলায় ছিল এবং জনসমাগম পূর্বের ন্যায় লক্ষ্য করা যায়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতানা ও নাচোল থানার হস্তক্ষেপে সেখানকার দোকানপাট ও ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ ও লোকসমাগম বন্ধ করা হয়।৩০মিনিট থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত মেডিকেলে আগত সকল রোগীকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া পূর্বক হাসপাতালে প্রবেশ এবং বাহির হওয়ার সময় নিজস্ব সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে বাহির হওয়ার ব্যবস্থা করে যাচ্ছেন। এছাড়াও যারা এমার্জেন্সি রোগী অটো কিংবা ভ্যানের মাধ্যমে হাসপাতালে প্রবেশ করছেন, তাদেরকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর মাধ্যমে হাত পরিষ্কার ও ব্লিচিং পাউডার সম্মিলিত তরলের মাধ্যমে ভ্যান, মোটরসাইকেল ও অটো জীবাণুমুক্ত করা পূর্বক হাসপাতালে প্রবেশের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন মসজিদে মসজিদে সাবান বিতরণ, হরিজন সম্প্রদায়ের মধ্যে সাবান বিতরণ, বাড়িতে কিভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার অথবা সাবান দিয়ে হাতকে জীবাণুমুক্ত করা যায় সেটি দেখানো, হ্যান্ডমাইক ও লিফলেট বিতরনের মাধ্যমে সচেতনতা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
এদিকে গতকাল ফতেপুর ইউনিয়নের প্রায় সবকটি বাজারে দেখা যায় এক ভিন্ন চিত্র! সেখানে বেশিরভাগ লোকই অসচেতন এবং শতকরা ৮০-৯০ ভাগ দোকানপাট ও ব্যবসা-বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন। এমতাবস্থায়, প্রশাসনের হস্তক্ষেপপূর্বক কিছু দোকানদার ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড ক্ষণিকের জন্য বন্ধ করলেও সে এলাকার জনগণের মধ্যে তেমন কোনো সচেতনতায় লক্ষ্য করা যায়নি। বিশেষ করে মল্লিকপুর ও খোলসি বাজারে বেশিরভাগ দোকানপাট ও ব্যবসা বাণিজ্যের দোকান খোলায় ছিল এবং জনসমাগম পূর্বের ন্যায় লক্ষ্য করা যায়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতানা ও নাচোল থানার হস্তক্ষেপে সেখানকার দোকানপাট ও ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ ও লোকসমাগম বন্ধ করা হয়।

SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

নগরীতে করোনা টিকার রেজিস্ট্রেশন ও ভ্যাক্সিনেশন কার্যক্রম শুরু হচ্ছে ২৬ জুলাই

মো.পাভেল ইসলাম নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের উদ্যোগে মহানগরীতে ওয়ার্ড পর্যায়ে করোনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *