Breaking News
Home / অন্যান্য / উন্মুক্ত জনতার কথা / কুষ্টিয়ায় মহাসড়কের বেহাল দশা : দেখার কেউ নেই

কুষ্টিয়ায় মহাসড়কের বেহাল দশা : দেখার কেউ নেই

শাহীন আলম লিটন কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়া শহরের লাহিনী বটতলা,হরিশংকরপুর,চাউলের বর্ডার,আড়ুয়াপাড়া,মিলপাড়া,সহ বেশ কয়েকটি এলাকার লাখো মানুষের যাতায়াতের একমাত্র সড়ক লাহিনী বটতলা থেকে কুষ্টিয়া বড় বাজার রেলগেট পর্যন্ত মহাসড়ক। আর এই সড়কটির বর্তমান বেহালদশা যেন দেখার মত কেউ নেই।দীর্ঘ দিন সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাটি খানাখন্দে ভরা ও  ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তাই চলাচল করতে গিয়ে প্রতিনিয়িত পথচারী ও যাত্রীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়,সবচেয়ে বেশি খারাপ অবস্থা হচ্ছে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রবিউল ইসলামের বাড়ি হরিশংকরপুর এলাকা থেকে লাহিনী বটতলা পর্যন্ত। স্থানীয়রা জানান,লাহিনী বটতলা থেকে বড় বাজার পর্যন্ত মহাসড়কে জেলার বাইরে দূর দুরান্ত থেকে আসা মালামাল ভর্তি ভারী যানবাহন চলাচল করার কারণে সড়কটির বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি সড়কের পিচ, সুরকি, ইট উঠে গিয়ে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টি হলেই ওইসব গর্তে পানি আটকে ভরে যায় তখন মনে হয় রাস্তাটি যানবাহনের জন্য নয় নৌকা চলাচলের জন্য উপযুক্ত।নাম না বলতে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ইজিবাইক চালক বলেন,আমি প্রতিদিন লাহিনী বটতলা থেকে নর বাজার রেলগেট পর্যন্ত আমার ইজিবাইক নিয়ে ভাড়া চালায়। প্রতিদিন যাতায়াতের সময় সড়কের এই বেহালদশা আর ছোট বড় খানাখন্দের কারণে আমি সহ আমার ইজিবাইকের যাত্রীদের চরম দূরভোগ পোহাতে হয়। অনেক সময় বড় বড় গর্তের মধ্যে ইজি বাইক উলটে যায় এবং বিভিন্ন রকম ইজিবাইকের যন্ত্রপাতি ভেংগে পড়ে যায়।তা ছাড়া  প্রায় ই সড়কের বেহালদশার কারণে ছোট বড় দূর্ঘটনা ঘটতেই থাকে। তাই উক্ত সড়কে প্রতিদিন যাতায়াতকারী ভুক্তভোগী সাধারণ জনগনের দাবি যথাযথ কর্তৃপক্ষ লাহিনী বটতলা থেকে বড় বাজার পর্যত সড়কটির দিকে সু দৃষ্টি দিয়ে দ্রুত সংস্কারের ব্যাবস্থা গ্রহন করবেন।
SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

রাজশাহীতে প্রতারক ও মানব পাচারকারী চক্রের ৩ সদস্য আটক

মো.পাভেল ইসলাম নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী নগরীতে প্রতারক ও মানব পাচারকারী চক্রের তিনজন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *