Breaking News
Home / অন্যান্য / কোভিড-১৯ / কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ঢাকাফেরত আরেক দম্পতির করোনা শনাক্ত

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ঢাকাফেরত আরেক দম্পতির করোনা শনাক্ত

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ায় ঢাকাফেরত আরও এক দম্পতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের বাড়ি কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার রেফায়েতপুর ইউনিয়নের কাঘাটি গ্রামে।
শনিবার (৯ মে) স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি ফেরেন তিনি। রোববার সকালে দুজনের করোনা পরীক্ষা করা হয়। রাতেই জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে ফোন করে তাদেরকে জানানো হয় স্বামী-স্ত্রী দুজনেরই করোনা পজিটিভ।
খবর পেয়ে রাতেই উপজেলা প্রশাসন তাদের বাড়িটি লকডাউন করেছে। কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন এ এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম রোববার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
করোনা নিয়ন্ত্রণ সেল থেকে পাওয়া তথ্যে আরও জানা যায়, রোববার সারা দিনে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ৪৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে কুষ্টিয়ার ৪১টি ও মেহেরপুরের ৮টি। মেহেরপুরের সবকটি নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। কুষ্টিয়ার দুজনের পজিটিভ পাওয়া গেছে। ওই দুজন স্বামী-স্ত্রী। তাদের বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।  উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি সূত্রে জানা যায়, আক্রান্ত ব্যক্তি ঢাকায় একটি ল্যাবে চাকরি করেন। তবে সেটা সরকারি কি-না, জানা যায়নি। শনিবার স্ত্রী-সন্তানসহ সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাট দিয়ে পদ্মা পার হয়ে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে পৌঁছান তিনি। সেখান থেকে আরেকটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে কুষ্টিয়ায় আসেন।
দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার জানান, খবর পেয়ে রোববার রাতেই তাদের বাড়িটি লকডাউন করে দেয়া হয়েছে। আক্রান্ত-স্বামী স্ত্রী দুজনই সুস্থ রয়েছেন বলেও তিনি জানান।
এ নিয়ে কুষ্টিয়া জেলায় করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২০ জনে দাঁড়ালো। এর মধ্যে ঢাকাফেরত দৌলতপুর উপজেলার চার বছর সাত মাস বয়সী মেয়েসহ আক্রান্ত দম্পতি ছাড়াও মোট ৮ জন চিকিৎসা শেষে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।
SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

নওগাঁর আত্রাই থাঐপাড়া প্রবাসী মানব কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর মাস্ক বিতরণ

  দনওগাঁ প্রতিনিধিঃ-করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক ও করোনাভাইরাস সচেতেনতা মূলক কোভিড-১৯ দুরত্ব বজায় রেথে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *