Breaking News
Home / অপরাধ / কুষ্টিয়ায় আবাসিক এলাকায় তামাক প্র‌ক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন  

কুষ্টিয়ায় আবাসিক এলাকায় তামাক প্র‌ক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন  

শাহীন আলম লিটন কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ায় আবাসিক ও ঘনবসতি এলাকায় তামাক প্র‌ক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।
বৃহস্পতিবার (৪ জুন) বেলা ১২টার দিকে সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে শহরের মিলপাড়া মোহিনী মিলের ১নং গেট সংলগ্ন তামাক প্র‌ক্রিয়াজাতকরন প্রতিষ্ঠান এইচ,আর,এস ইন্ড্রাঃলিঃ এর সামনে  এই  মানববন্ধন কর্মসূচী  অনুষ্ঠিত  হয়।
মানববন্ধনে অত্র এলাকার মহিলা,শিশু,বৃদ্ধ,যুব সমাজ,সহ সকল পেশার জনগণ অংশ  নেন। এ  সময় উপস্থিত সকলে আবাসিক এলাকায় তামাকের মতো বিষাক্ত ফ্যাক্টরি অবিলম্বে বন্ধ করার জোর দাবি জানান।
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবি আব্দুর রহমান বলেন,তামাক একটি বিষাক্ত।আর এই বিষাক্ত জিনিস আমাদের ঘরের সাথে দিন রাত ২৪ ঘন্টা প্রস্তুত করা হয়। মিল চলাকালে বিষাক্ত কালো ধোয়ার সাথে বিকট দুর্গন্ধে আমাদের নিশ্বাস বন্ধ হবার মতো অবস্থা হয়ে যায়। এর কারণে এলাকার লোকজন  আক্রান্ত হচ্ছে নানা ধরনের অসুখে। আমাদের বাচ্চারা মাঝে মাঝে বমি করে ফেলে। যারা বয়স্ক ও হাপানি রোগী তাদের অনেকে এলাকাতে থাকতে না পেরে অন্যত্র চলে গেছে।
তিনি বলেন, সিগারেটের প্যাকেটের গায়ে লিখা আছে ধুমপানে ক্যান্সার হয় তাহলে আমরা ধুমপান না করেও এই তামাক প্রতিষ্ঠানের  কারণে ক্যান্সারের ঝুকিতে আছি। করোনার এই সময়ে এমনিতেই  শ্বাসকষ্ট নিয়ে আমরা সকলে আতংকিত। তখন কিভাবে এই মিলের কালো ধোয়ার সাথে তামাকের বিকট দুর্গন্ধ নিয়ে সুস্থ থাকবো? তাই অবিলম্বে আমাদের নিজেদের কথা চিন্তা করে এই মিল বন্ধ করতে চাই।
স্থানীয় বাসিন্দা জাকির হোসেন বলেন, গতকালও আমরা মানব বন্ধন করেছি। কিন্তু   এই মিলের মালিক পুলিশ দিয়ে আমাদের শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন ভংগ করে দেয়।
তিনি আরও বলেন গতকাল পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা এসে মিলের ভিতরে প্রবেশ করতে চাইলে মিল মালিক হাফিজ প্রবেশ করতে দেয়নি। উনি অনেকক্ষণ অপেক্ষা করে ফিরে গেছেন। মিল মালিক হাফিজ একাধিকজনকে বলেছেন এখানে কারোর থাকতে অসুবিধা হলে উঠে চলে যাবে।  ক‌িন্তু আমি যাবনা।
এলাকাবাসী জানায়, এর আগে কুষ্টিয়া পৌরসভা ২০২০ সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত সময় বেধে দিলেও উনি উনার নিয়মেই চলছেন। কিন্তু বলছেন পৌরসভা থেকে সময় বাড়িয়ে এনেছেন। কিন্তু মিল মালিক হাফিজ মুখে বলছেন সব কাগজ আছে কিন্তু সেগুলো দেখতে চাইলে বলেছেন পরে দেখাবেন। তামাক মিলের সাথেই রয়েছে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২টি কিন্ডারগার্টেন স্কুল। বাচ্চারা মিলের কালো ধোয়া ও তামাকের গন্ধে ঠিক মতো স্কুলে যেতে পারেনা, মাঝে মাঝে স্কুলে বাচ্চারা বমি করে ফেলে। আমাদের বাচ্চা ও নিজেদের সুস্থ থাকতে হলে জীবন দিয়ে হলেও এই বিষ ফ্যাক্টরি বন্ধ করতে যা যা করা লাগবে তাই ই করব।
এদিকে সাংবাদিকরা মিলের ভিতরে প্রবেশ করতে চাইলে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।  মালিক হাফিজুর  রহমান ভেতর থেকেই বলেন এলাকার মানুষের কথা সঠিক। উনারা যা বলছেন আপনারা তাই লিখে দেন।
এদিকে দৈনিক আমার সময় এর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি এ,জে সুজনকে লাঞ্চিত ও হুমকি প্রদানের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কি চিনে রাখি কে সাংবাদিক?
পরে প্রতিষ্ঠানের মালিক স্থানীয়  পুলিশ  ফাঁড়ি  ও  থানা থেকে  পুলিশ ডেকে এনে বাইরে বের হন।
কুষ্টিয়া পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক  বলেন, আমাদের এখান থেকে ওই মিলের কোন অনুমোদন নেই। মিল মালিক মুখে বলছে উনার কাগজ সব সঠিক। কিন্তু দেখতে চাইলে নানান অজুহাত দেখায়।
স্থানীয় জনগন, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ  সদর এমপি মাহবুবউল  হক হানিফ এর কাছে সাহায্য কামনা করেছেন তাদের জীবন বাঁচাতে এই মিল বন্ধ করার জন্য।
SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

নগরীতে করোনা টিকার রেজিস্ট্রেশন ও ভ্যাক্সিনেশন কার্যক্রম শুরু হচ্ছে ২৬ জুলাই

মো.পাভেল ইসলাম নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের উদ্যোগে মহানগরীতে ওয়ার্ড পর্যায়ে করোনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *