Breaking News
Home / অন্যান্য / উন্মুক্ত জনতার কথা / করোনা নয়, ক্ষুধায় মরবে মানুষ

করোনা নয়, ক্ষুধায় মরবে মানুষ

মোঃ কামরুজ্জামান,ডিআইইউ, প্রতিনিধিঃ

কোনো কিছু মানে না ক্ষুধা,তাই তো হাজার শর্ত ভঙ্গ করে মানুষ আজ বাইরে।

কোভিট-১৯ নামক রোগ যা শুরু হয় চীন দেশের উহান শহর থেকে আস্তে আস্তে তা আজ ২০০ এর অধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। রক্ষা পাই নি মধ্যবিত্তের দেশ বাংলাদেশ । হু হু করে আক্রান্তের সাথে মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে এই ঘনবসতিপূর্ণ  দেশে। যা চিকিৎসকদের চিন্তার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে।
৫৮ তম দিনে বাংলাদেশে আক্রান্তে সংখ্যা ৮ হাজার ২০০ জন ছাড়িয়েছে, মৃত্যুর সংখ্যা ১৭০ জন ছাড়িয়েছে, সুস্থ ১৭৪ জন, আইইডিসিআর।

৮ই মার্চ বাংলাদেশে করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় ২৬ শে মার্চ থেকে সব কিছু লক ডাউন এর আওতায় আনা হয়, শুধু জরুরি সেবা বাদে।
এতে দিন দিন মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ে।
তাই সরকার দেশের গরীব, অসহায়, দিনমজুর, মানুষদেরকে ত্রাণ দিয়ে সহায়তা করছে। কিন্তু বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হচ্ছে, সরকার গরিব, অসহায়, দিনমজুর, মানুষদের যে ত্রাণ দিয়েছে তা সঠিকভাবে গরিব অসহায় মানুষদের কাছে ঠিক ভাবে পৌছাচ্ছে না।  এতে করে দেশের অনেক গরীব মানুষ না খেয়ে অর্ধহারে আছে।

উল্লেখ্য পরিবহন শ্রমিক,রিক্সা চালক, দিনমজুর  এই ধরনের মানুষ বেশি এই সংখ্যায়।  অনেক মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছে এই মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে এদের কাজ বন্ধ থাকায়।
এতে করে বাংলাদেশে হাজার হাজার মানুষ বেকার হয়ে পড়েছে। যাতে করে আমাদের দেশের দরিদ্রতা বৃদ্ধি পাচ্ছে এতে দেশের আয় কমে যাচ্ছে।
এবং অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বিশাল আকারে।
এতে করে দেখা যাচ্ছে মানুষকে হাজার নিয়ম বেঁধে দিয়েও লাভ, হচ্ছে না। কারণ ক্ষুধার জন্য  বাহিরে বেড়িয়ে আসছে কর্মহীন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষরা।

কথা হয় হাসেম নামে এক শ্রমজীবি মানুষের সাথে, তিনি বলেন মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রোজগার করি হাতের জোর দিয়ে কোদাল চালিয়ে পেট চালাই কিন্তু সব কাজ বন্ধ থাকায় থমকে আছে সব কাজ  ঘরে বউ বাচ্চা এক বেলা খেয়েই দিন পার করছে কোনো বেলা না খেয়েই চলছে। কিন্তু স্ত্রী,সন্তানদের মুখে চেয়ে ঘরে থাকতে পারলাম না কাজের সন্ধানে বের হলাম।

এভাবে দিন দিন বাংলাদেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলছে।
মানা হচ্ছে না, লকডাউন, সামাজিক দূরত্ব তাই গবেষকরা মনে করে যে করোনাতে নয়, ক্ষুধায় মরবে মানুষ।

তাই একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে সরকারকে অনুরোধ করছি শুধু লিপিবদ্ধ করে ত্রাণ দিলে হবে না। নিশ্চিত হতে হবে যে ঠিকমতো, গরীব মানুষ ত্রাণ সামগ্রী  পাচ্ছে কী না।

গরীব শ্রমজীবি মানুষের পাশে দাঁড়ালে বাঁচবে আমাদের অর্থনীতি। তাই সরকারের উর্ধ্বতন কর্মকতাদের সব কিছু তদন্ত করে, যারা এই বিপদের সময় গরীব, অসহায়, দিনমজুর মানুষের ত্রাণ মেরে খাচ্ছে তাদের কঠিন শাস্তি দিয়ে। অসহায় দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াবে বলে সুশীল সমাজের মানুষ মনে করেন।

মোঃ সাজিদ হাসান
শিক্ষার্থী, সিভিল বিভাগ, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ।

SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

রাজশাহীতে প্রতারক ও মানব পাচারকারী চক্রের ৩ সদস্য আটক

মো.পাভেল ইসলাম নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী নগরীতে প্রতারক ও মানব পাচারকারী চক্রের তিনজন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *