Breaking News
Home / অপরাধ / কক্সবাজার সদরের খরুলিয়ায় যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন

কক্সবাজার সদরের খরুলিয়ায় যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন

মো: সাইফুল ইসলাম কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজার সদরের ঝিলংজার খরুলিয়া বেপারী পাড়ায় দীর্ঘদিন যাবত গৃহবধূ আসমা আক্তারকে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেেছে । আজ দুপুরে তার স্বামী আমান উল্লাহ (৩৫) পিতা -মৃত আবুল হোসন দেবর সলিম উল্লাহ (৩২) পিতা -ঐ ,দেবরের বউ কুলছুমা আক্তার (২৫) স্বামী – সলিম উল্লাহ কতৃৃক অমানবিক নির্যাতন স্বিবীকা হয় গৃহবধ । ভুক্তভোগীর ভাই মোঃ শাহ জাহান জানান আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমার বোন উপরোক্ত গনের সাথে একই পরিবারে যৌতভাবে বসবাস করে। তারা যৌতকের লোভে আমার বোনকে অমানবিক নির্যাতন করে। বিগত ১৯/০৬/২০০৮ সালে ইসলামী শরীয়তের বিধান মতে রেজিষ্ট্রি কাবিন মূলে আমান উল্লাহর সাথে আমার বোনের বিবাহ হয়। বিবাহের পর তাহার সহিত দাম্পত্য জীবন হয়। তদসুবাদে আমান উল্লাহর ঘরে ৪ সন্তান ভূমিষ্ট হয়। কিন্তু  যৌতকের লোভে আমান উল্লাহর ও তার পরিবারের যোগ সাজসে আমার বোনের নিকট হইতে যৌতুক দাবী করিয়া শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতেছে। আমার বোন সংসারের সুখের আশায় ও ৪ ছেলে মেয়ের ভবিষ্যৎ চিন্তা করিয়া তাদের নির্যাতন সহ্য করে সংসার করছে। উক্ত বিষয়ে স্থায়ীভাবে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বহুবার শালিস বিচার করে । কিন্তু তারা স্থানীয় বিচারের কোনরকম কর্ণপাত না করিয়া আমার বোনকে চরম নির্যাতন করিতে থাকে । এক পর্যায়ে গত কাল দুপুর ২ ঘটিকার সময় তারা সি এন জি গাড়ি খরিদ করার অজুহাত দিয়া আমার বোনের নিকট হইতে( ৩,০০,০০০) তিন লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। তাদের দাবীকৃত টাকা দিতে আমার বোন অপারগতা প্রকাশ করলে ,আমার বোনের ব্যবহৃত (৩) তিন ভরি স্বর্ণালংকার আত্মসাৎ করে। আর এই স্বর্ণালংকার আত্মসাৎ করার প্রতিবাদ করার সাথে সাথে আমার বোনের স্বামী আমান উল্লাহ ক্ষিপ্ত হইয়া আমার বোনের মাথা ধরিয়া স্বজোরে দরজায় ধাক্কা মারে। যার কারণে বোনের কপালের ডান পাশ্বে ফাটিয়া মারাত্মক রক্তাক্ত জখম হয়। তাদের হাতে থাকা লাটি দ্বারা এলোপাতাড়ি বারি মারিয়া শরীরের উভয়রানে ও বাম বাহুতে মারাত্মক আঘাত করে। তাছাড়া  চুলের মুটি ধরিয়া টানা হেছড়া করে এবং কিল, ঘুষি লাটি মারিয়া আঘাত করে। পরে আমাকে খবর দিলে দ্রুত বোনের শশুর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় বোনকে উদ্ধার করিয়া সাথে সাথে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করি। আমার বোন বর্তমানে মুমূর্ষু অবস্থায় রয়েছে। উক্ত ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে । বিচারের স্বার্থে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

 

SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

ধান,গম ছেড়ে ভুট্টা চাষে ঝুঁকছে ফুলবাড়ীর চাষিরা

মোঃ আরিফুল ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধি: ফুলবাড়ীতে গত ১০-১২ বছরে গমের আবাদ কমেছে অন্তত ৮০ ভাগ। এখন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *