Breaking News
Home / উপজেলার খবর / উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও এনামুলকেই চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চান হাতুড় ইউনিয়নবাসী

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও এনামুলকেই চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চান হাতুড় ইউনিয়নবাসী

মো. মাহবুবু-উল আলম,মহাদেবপুর(নওগাঁ) প্রতিনিধি :-নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ২নং হাতুড় ইউনিয়নের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও বিএনপির নেতা এনামুল হককে চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চান ইউনিয়নবাসী।
এ বিষয়ে সংবাদ সংগ্রহকালে জানা যায়, আগামী ইউপি নির্বাচনে তরুণ সমাজসেবক, বর্তমান চেয়ারম্যান, জননেতা মোঃ এনামুল হক মন্ডলকেই আবার ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান এখানকার নতুন ও পুরাতন ভোটাররা। স্থানীয় তরুণ প্রজন্মের নেতা-কর্মীদের সাথে আলাপের মাধ্যমে এমন তথ্য জানা গেছে। তাদের মতে তরুণ এই নেতা এরই মধ্যে স্থানীয় জনগণের আস্থার প্রতীক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন। ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতির দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে স্থানীয় রাজনীতিতে নিজেকে টেনে নিয়ে এসেছেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। তাইতো নিজ দলীয় কর্মী-সমর্থকসহ এলাকাবাসীর অধিক আগ্রহের কারণেই মনস্থির করেছেন আগামী ইউপি নির্বাচনে আবারও প্রার্থী হয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখবেন।
সরোজমিনে এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, চেয়ারম্যান এনামুল হক তার নির্বাচনী এলাকা ঐতিহাসিক মাহিষবাথান হাটের বাঁধের উপর যাত্রীদের বিশ্রামের জন্য তিনতলা যাত্রী ছাউনিসহ ৩০টি বসার সিট নির্মাণ, সমাসপুর খেয়াঘাটের উপরে যাত্রীদের বসার সিট নির্মাণ, দেওয়ানপুরে বসার সিট নির্মাণ, মির্জাপুরে যাত্রীদের বসার সিট নির্মাণ, মুখরে যাত্রীদের বসার সিট নির্মাণ, জিওলী শ্মশানের ছাউনি সহ সেট নির্মাণ, মালাহারে ২টি বসার সেট নির্মাণ, বেলকুড়ি বাজারে যাত্রী ছাউনি নির্মাণ, রাইপুর বাজারে যাত্রী ছাউনি সহ বসার সিট নির্মাণ করেছেন।
পানি নিষ্কাষণের জন্য হাতুড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে খোলা ড্রেন নির্মাণ, গোফানগরে খোলা ড্রেন নির্মাণ, মহিষবাথান বামনদহ গ্রামে পাইপ লাইনের মাধ্যমে গ্রেন ও ইউ ড্রেন নির্মাণ, দেওয়ানপুরে ড্রেন ও ইউড্রেন নির্মাণ, হরেকৃষ্ণপুরে ইউড্রেন নির্মাণ, সাগরইল বাজারে স্লাব ড্রেন নির্মাণ, মির্জাপুরে ছোট-বড় ইউড্রেন নির্মাণ, বিশ্বনাথপুরে খোলা ড্রেন নির্মাণ, তেভায়ায় ইউড্রেন নির্মাণ, জিউলীতে দুটি ইউড্রেন নির্মাণ, আমড়াইয়ে দুটি ইউড্রেন নির্মাণ, মির্জানগরে ড্রেন নির্মাণ, রাইপুরে ৩টি ইউড্রেন নির্মাণ করেছেন।
বিভিন্ন রাস্তার ভাঙ্গনরোধে উখরইল নিজামুদ্দিনের পুকুরে ব্রিকওয়াল নির্মাণ, শালবাড়ী সত্যের পুকুরে ব্রিকওয়াল, রাজবংশী পাড়া মন্দিরের পুকুরে ব্রিকওয়াল নির্মাণ করেছেন।
দেওয়ানপুর গোপালডাঙ্গা শতভাগ স্যানিটেশন, সাগরইল গোকুলপুর আদিবাসী পাড়ায় শতভাগ স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণ। এছাড়াও বিশুদ্ধপানি সরবরাহ ও সেচকাজে ব্যবহারের জন্য সাগরইল আদিবাসী পাড়ায় ট্যাংকসহ পানির পাম্প স্থাপন, গোফানগর আদিবাসী পাড়ায় ট্যাংকসহ পানির পাম্প স্থাপন, মহিষবাথান সরদারপাড়ায় ট্যাংকসহ পানির পাম্প স্থাপন করেছেন।
বর্ষার সময় যেসকল রাস্তা চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে যেতো সেসকল রাস্তার মধ্যে রাইপুর মির্জানগর পাকা রাস্তা হতে বাজার মসজিদ পর্যন্ত রাস্তা সিসি করণ, বেলকুড়ি ফুটবল মাঠ থেকে জামে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তায় ইট সোলিং, সাগরইল গ্রামের রাস্তায় ইট সোলিং, মহিষবাথান বিশ্ববাঁধ হতে বাজার জামে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তা সি.সি করণ, বিলশিকারি দুর্গা মন্দিরের সামনে আটচালা নির্মাণ, বিশ্বনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণসহ অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন তিনি।
এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে সোনাকুড়ি গ্রামের বাসিন্দা ও মাতৃমঙ্গলা বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবু হেনা মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, এলাকাবাসীর অত্যন্ত আস্থাভাজন ও তাদের সুখ-দুঃখের অংশীদার হিসেবে এনামুল হককে আগামী নির্বাচনে আবারও চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান। এ ইউনিয়নের উঠতি ভোটারদের মতে এনামুল হক চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবার পর স্থানীয় রাজনীতিকে যেভাবে সুসংগঠিত করে সাজিয়েছেন এবং নেতা-কর্মীদের আস্থা অর্জন করেছেন সেখানে এনামুল হকের বিকল্প কোন প্রার্থী নাই।
এ ব্যাপারে রাইপুর গ্রামের আব্দুল হাই বলেন, এনামুল হক মন্ডল একজন পরিপুর্ণ রাজনীতিবিদ। তরুণ এই রাজনৈতিক নেতা দিনের ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৮ ঘণ্টায় এলাকার জনগনের পেছনে ব্যয় করেন। স্থানীয় জনগণ তাকে সবসময়েই কাছে পায়। তাই স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা-কর্মীগণ এমন একজন কর্মীবান্ধব নেতাকেই আবারো চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চান।
হাতুড় গ্রামের শাহাজাহান বলেন, একজন যোগ্যনেতা হিসেবে জনগণের সাথে রয়েছে তার যথেষ্ঠ সম্পৃক্ততা। তিনি একজন ন্যায় বিচারক। মাদকের বিরুদ্ধে তিনি সবসময়ই সোচ্ছার ভুমিকা রেখে আসছেন। যে কারণে আমাদের আগে এলাকার সাধারণ জনগণই তাকে আবারো চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চায়।
বেহাজত গ্রামের মমিনুল ইসলাম বলেন, সারা হাতুড় ইউনিয়ন জুড়ে এনামুল হকের রয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা। এলাকাবাসী তাদের যেকোন ধরনের চাহিদার সময় এনামুলকেই কাছে পায়। কাজেই এনামুলকেই এলাকাবাসী আবার চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চান।
গাহলী উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক দিলীপ কুমার বর্মন বলেন, এনামুল হক হচ্ছেন মাটি ও মানুষের নেতা। একদম তৃণমূল থেকে কিভাবে দলকে সু-সংগঠিত রাখতে হয়। কিভাবে তৃণমূলের একজন নেতা-কর্মীর মন জয় করা যায় এসব গুণাবলী তার মধ্যে বিদ্যমান। এলাকাবাসী তাদের নেতা হিসেবে ঘুরে ফিরে তাকেই সবসময় কাছে পান, তাই তার প্রতি এলাকার সাধারণ জনগনের বড় রকমের একটা আস্থা তৈরি হয়েছে। এ আস্থা থেকেই এলাকাবাসী তাকে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চান।
হাতুড় ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক বলেন, তার সময়ে ইউনিয়নের সর্বত্র ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি রাইপুর দেলোয়ারের বাড়ি হতে কেন্দ্রীয় মসজিদ পর্যন্ত রাস্তায় ইট সোলিং, মির্জানগর মাবুদের বাড়ির সামনে পুকুরে ব্রীকওয়াল নির্মাণ, মালাহার-গলিহার পাকা রাস্তা হতে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তায় ইট সোলিং, মির্জাপুর মাদ্রাসার রাস্তায় ও উত্তরপাড়ায় ইউড্রেন সংস্কার, সাগরইল গোকুলপুর রাস্তায় ইউড্রেন নির্মাণ, দেওয়ানপুর ছয়ঘাটি রাস্তায় ইউড্রেন নির্মাণ, নিজামপুর গ্রামের রাস্তায় ইউড্রেন নির্মাণ কাজ চলমান আছে।
তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী জানতে চাইলে তিনি জানান, তিনি পুণরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে সাগরইল টিয়াপাড়া রাস্তার পুকুরে ব্রীকওয়াল নির্মাণ, মির্জাপুর বটতলী মোড়ে খোলা ড্রেন নির্মাণ, মির্জাপুর রাস্তায় ইট সোলিং, মহিষবাথান মৎস্যজীবী পাড়াতে খোলা ড্রেন নির্মাণ, গোফানগর মজিদুলের বাড়ির সামনে খোলা ড্রেন নির্মাণসহ ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহণ করা হবে।

SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

কুষ্টিয়ায় কারারক্ষীর বদলে ছাগল পুরুষ ওয়ার্ডে গরু ৪০ বছরেও কয়েদীর মুখ দেখেনি উপ-কারাগারটির

শাহীন আলম লিটন, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : প্রায় ১২ দশমিক ২ একর জমির উপর আশির দশকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *