Breaking News
Home / চাঁপাই-নবাবগঞ্জ / আওয়ামী লীগ কে দু’ভাগে ভাগ করার চেষ্টা করবেন না : জেলা শ্রমিকলীগ সেক্রেটারি রিতু

আওয়ামী লীগ কে দু’ভাগে ভাগ করার চেষ্টা করবেন না : জেলা শ্রমিকলীগ সেক্রেটারি রিতু

স্টাফ রিপোর্টার, কপোত নবী : জাতীয় শ্রমিক লীগ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. মাহবুব হাসান রিতু বলেছেন, সম্প্রতি সময়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার সোনামসজিদ স্থলবন্দরের একটি কমিটি প্রকাশিত হয়েছে। যাতে সমর্থন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ, শিবগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান। যেটা নিয়ে ফেসবুকে অনেক লেখা লেখি শুরু হয়েছে।

এ কমিটির জন্য আওয়ামী লীগ এর সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সমর্থন জানিয়েছেন। কিন্তু আমার প্রশ্ন হচ্ছে, আমার জানা মতে চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা আওয়ামী লীগ এর এখনও পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। গঠণতন্ত্র অনুযায়ি পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়া পর্যন্ত জেলা আওয়ামী লীগ কোন কমিটি অনুমোদন দিতে পারেন না। তাই হয়তো তারা শুধু শীল, সই করেছেন। কেউ অনুমোদন বা সুপারিশ লিখেনি।

আপনাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, আওয়ামী লীগ কে দুই ভাগে ভাগ করার চেষ্টা করবেন না। আমাদের শত্রু কিন্তু আমরাই বিএনপি জামাত নয়। যা গত নির্বাচনে দেখেছি চাঁপাইনবাবগঞ্জে দুটো সীট আমাদের হারাতে হয়েছে। নিজ স্বার্থের জন্য আমরা জারা দেশের এই ক্রান্তি লগ্নে একটি অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টা করছি তাদের বলতে চাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক যারা তারা কখনও নিজেদের লোক দের একে অন্যের বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারেনা। বঙ্গবন্ধু আমাদের এই প্রজন্মের জন্য নিজে দিনের পর দিন জেল খেটেছেন। নিজের জীবন দিয়ে শিখিয়ে গেছেন মানুষ কে কিভাবে ভাল বাসতে হয়। আর আমরা নিজ স্বার্থে জন্য ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজেদের মধ্যে তৈরি করছি লবিং গ্রুপিং, একে অপরের জাত শত্রু।

আমরা যারা আওয়ামী লীগ এর রাজনীতি করি তারা নিজ স্বার্থের জন্য আওয়ামী লীগ কে ডুবিয়ে দিতে একবারও পিছুপা হচ্ছি না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আর্দশ কে নয় নিজ স্বার্থ কে উদ্ধার করতে আওয়ামী লীগ করি। তাই সময় থাকতে নিজে পরির্বতন হতে হবে। না হলে আগামীতে অনেক দুঃখ অপেক্ষা করছে।

তিনি আরো জানান, এই কমিটি আসলে অনুমোদিত কি না সেটা আমাদের জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি সাধারণ সম্পাদক ভাল ভাবে জানে। তাই আমি জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি সাধারণ সম্পাদক এর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। আপনারা শ্রমিক স্বমন্ময় কমিটি করলেন কিন্তু শ্রমিক লীগ এর কেউ জানতে পারলো না। ব্যাপার টা হাস্যকর ছাড়া কিছুনা। যেখানে শ্রমিক সমন্বয় শ্রমিকলীগ এর আওতাভূক্ত। সকলের সম্মতি ক্রমে কমিটি প্রদান করা উচিত। শ্রমিক দের জন্য কাজ করার জন্য ১৯৬৯ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় শ্রমিকলীগ প্রতিষ্ঠা করেছেন। এটা আপনাদের জানা উচিত।

জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক শিবগঞ্জ উপজেলার শ্রমিকলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সোনামসজিদ স্থলবন্দরের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক যদি স্বাক্ষর করত সে ক্ষেত্রে আলাদা বিষয় ছিল। আমার জানা মতে স্থানীয় সরকারের প্রধান হচ্ছে মাননীয় সংসদ সদস্য। তিনিই সর্বোচ্চ অভিভাবক।

উল্লেখ্য, আমের রাজধানী খ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সোনামসজিদ স্থলবন্দরের শ্রমিক সমন্বয় কার্যনির্বাহী কমিটিকে সমর্থন জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ ও শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মঈনুদ্দিন মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদ, শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু আহমদ নজমুল কবির মুক্তা ও সাধারণ সম্পাদক মো. আতিকুল ইসলাম টুটুল খান ও শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম পূর্ণ সমর্থন জানান।

৩৭ সদস্য বিশিষ্ট সোনামসজিদ স্থলবন্দর শ্রমিক সমন্বয় কমিটিকে ৬ জুন শনিবার সমর্থন জানান বলে জানা গেছে। এ কমিটির সভাপতি মো. আমিনুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. ওবাইদুল হক, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আয়েশ উদ্দীন মেম্বার, সহ-সভাপতি আয়েশ উদ্দীন সরদার, সাইফুদ্দিন মন্ডল সরদার, ও জমিরুল ইসলাম জামু সরদার।

এ ছাড়া যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ৪ জন, একজন অর্থ সম্পাদক, একজন বন্দর সম্পাদক, একজন সহ বন্দর সম্পাদক, দুজন সাংগঠনিক সম্পাদক, একজন প্রচার সম্পাদক, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক একজন, সড়ক ও যোগাযোগ সম্পাদক একজন, সহ-সড়ক ও যোগাযোগ সম্পাদক একজন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক একজন, আইন ও বিচার বিষয়ক সম্পাদক একজন ও ১৬ জন সাধারণ সদস্য নিয়ে গঠিত হয়েছে এ কমিটি।

SK Computer, Godagari, Rajshahi. 01721031894

About জনতার কথা ডেস্ক

Check Also

গণপরিবহন চালুর দাবিতে রাজশাহীতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ, আন্দোলনের হুঁশিয়ারি

মোঃ পাভেল ইসলাম নিজস্ব প্রতিবেদক:স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে গণপরিবহন চালুর দাবিতে সারাদেশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *